রিক্সাও ভ্যান, নির্মাণ শ্রমিকদের ত্রাণ ও নগদ সহয়তার দাবিতে আশুলিয়ায় মানববন্ধন।

রিক্সাও ভ্যান, নির্মাণ শ্রমিকদের ত্রাণ ও নগদ সহয়তার দাবিতে আশুলিয়ায় মানববন্ধন।
ঢাকার সাভারের আশুলিয়া এলাকায় সরকারি ত্রাণ ও নগদ সহয়তার দাবিতে মানববন্ধন করেছে করোনাভাইরাসের প্রভাবে লকডাউনের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া রিক্সাও ভ্যান শ্রমিক এবং নির্মাণ শ্রমিকরা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা।
আজ ২০ এপ্রিল সোমবার সকাল ১০টায় টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের আশুলিয়ার ইউনিক থেকে শিমুলতলা এলাকায় মানববন্ধন করেন তারা।
এসময় প্রায় ৩ শতাধিক কর্মহীন রিক্সাও ভ্যান চালক এবং নির্মাণ শ্রমিকরা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ত্রাণ ও নগদ সহয়তার দাবিতে এই মানববন্ধন করেন। এসময় তাদের হাতে বিভিন্ন হাতে বিভিন্ন দাবী লেখা ফেস্টুন দেখা যায়।
রিক্সা শ্রমিকরা জানান, করোনার প্রভাবের মধ্যেও অনেক সময় ঝুঁকি নিয়ে পেটের দায়ে আমরা রিক্সা নিয়ে বের হয়ে পারতাম। কিন্তু রাস্তায় কোনো যাত্রী পাওয়া যায় না। তাই রিক্সা রাস্তায় বের করেও কোনো ফায়দা হয় না। আমরা ১ মাসেরও বেশি কর্মহীন হয়ে আছি। আমাদের দিকে কেউ তাকাচ্ছে না। আমাদের পরিবার না খেয়ে আছে।
মানববন্ধনে দাঁড়িয়ে থাকা নির্মাণ শ্রমিকরা বলেন, আমার পরিবার খাবার অভাবে আমরা না খেয়ে আছে। এর আগে এক বেলা খেয়ে আরেক বেলা না খেয়ে ছিলাম। আজ থেকে এক বেলারও খাবার নাই। আমাদের কাজকর্ম বন্ধ হয়ে গেছে। সরকারি বা বেসরকারি ভাবে আমরা কোনও সহযোগিতা পাইনি। কেউ কোনো পদক্ষেপও নেয়নি। তাই বাধ্য হয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়েছি।
মানব বন্ধনে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাভার-আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি খাইরুল মামুন মিন্টু বলেন গত ২৫ মার্চ থেকে লকডাউন থাকার ফলে দিন মজুর শ্রমিক যেমন রিক্সা ও ভ্যান চালক, নির্মাণ শ্রমিক, পরিবহণ শ্রমিক, হোটেল শ্রমিক, প্রডাকশন ভিত্তিক গার্মেন্ট শ্রমিকসহ ভিবিন্ন পেশার দিন মজুর শ্রমিক যারা তারা বেকার হয়ে পড়েছে, এমনিতেই তাদের দিন চলতোনা আর এখন তো কর্মহীন, তাদের ঘরে কোন খাবার নেই, তারা যে বাড়ীতে ভাড়া থাকে সেই বাড়ীওয়ালা ভাড়ার জন্য চাপ দিচ্ছে অন্য দিকে বকেয়া টাকা পরিষদ না করার কারণে দোকানদার  দোকান বাকী দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে, এই শ্রমিকরা তাদের বাচ্চাদের দুধ কিনতে পারছেনা, যার কারণে তারা বর্তমানে মানবেতর জীবন যাপন করছে, তারা স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে গিয়েও কোন সহায়তা পাচ্ছেনা।
বর্তমানে করোনা ভাইরাসের প্রভাব বাড়তে আছে তাতে বোঝায় যাচ্ছে যে বাংলাদেশে লকডাউন সহজে উঠবে না তাই নির্মান ও রিক্সাসহ ভিভিন্ন পেশার দিন মজুর শ্রমিকদের তালিকা তৈরি করে ত্রান কার্ডের মাধ্যমে যতদিন কর্মহীন অবস্থায় থাকবে ততদিন নগত সহয়তা সহ ত্রান সহায়তা প্রদানের খাইরুল মামুন মিন্টু সরকারের কাছে দাবী জানান।
মানব বন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র সাভার-আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু। আশুলিয়া থানা রিক্সা ও ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি আব্দুল মজিদ, সাধারণ সম্পাদক আলতাব হোসেন । আশুলিয়া থানা সড়ক নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি নবীয়াল ফকীর, সাধারণ সম্পাদক নদের চাঁদ মিয়া।
Thanks For You Reading The Post We are very happy for you to come to our site. Our Website Domain name https://www.atikurbd.com/.
নবীনতর পোস্টসমূহ নবীনতর পোস্টসমূহ পুরাতন পোস্টসমূহ পুরাতন পোস্টসমূহ

আরও পোস্ট

মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন