1. atikur.bdco@gmail.com : admin :
স্মৃতিতে ৭১-এর ১৭ই এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস - www.atikurbd.com
ঘোষণা :
লেখা আহবান খেলার সাথী, রবিউল ইসলাম পদ্মা_সেতু,যা আপনার জানা উচিত স্মৃতির পাতায় একজন আবদুল গাফফার চৌধুরী শেখ হাসিনার দিল্লী নির্বাসনঃ কেমন ছিল দিনগুলো? বিপর্যস্ত চাষী, রবিউল ইসলাম আজ ১৭ মে বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন প্রকৃতির প্রেম – রবিউল ইসলাম স্মৃতিতে ৭১-এর ১৭ই এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস রবিউল ইসলাম স্মৃতি বড় মধুর আজ ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। ঘাতক জননী, রবিউল ইসলাম রবিউল ইসলামের কবিতা বাল্যবন্ধু রবিউল ইসলামের কবিতা,শোক সংবাদ রবিউল ইসলামের কবিতা পরিত্যক্ত বিশ্ববাসীকে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত তথ্য জানাতে বিশ্ব সফর করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধী রবিউল ইসলামের কবিতা, নারী রবিউল ইসলামের কবিতা, মহাজন পুর নির্ঘুম শহর– দালান জাহান তুমি শোক নও,শক্তি How to create a profilebacklink হে জ্যোতির্ময় ১১ আগষ্ট থেকে চালু হচ্ছে হাইকোর্ট বিভাগের সকল বেঞ্চ ৮-১২ই আগষ্ট পর্যন্ত বিচারকাজ পরিচালনায় হাইকোর্ট বিভাগে ১২ টি বেঞ্চ গঠন রবিবার থেকে চালু হচ্ছে আপীল বিভাগের বিচারিক কার্যক্রম মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলা চিঠি হাইকোর্টে নতুন আরও ৯ বেঞ্চ গঠন একজন বিচক্ষণ বাদশার গল্প সিপিবি’র প্রাথমিক বাজেট প্রতিক্রিয়া অর্থ আয়ের পথ সহজ করল ইউটিউব! করোনায় ৪০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৬৭৫ ২৪ ঘণ্টায় ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৩৫৪ ৩৫ ভার্চুয়াল ও ১৮ রেগুলার বেঞ্চ চেয়ে প্রধান বিচারপতিকে স্মারকলিপি ২৪ ঘণ্টায় ২৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৬৩ আজ মৃত্যু ৩৩ পরীক্ষা ১৪১৮৪ শনাক্ত ১২৩০ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আপাতত গাছ কাটা নিষিদ্ধ করেছে হাইকোর্ট আদালতের ইংরেজি রায় বাংলা করবে ‘আমার ভাষা’ সফটওয়্যার জেনে নিন বাংলায় ব্যবহৃত ১২৮টি যুক্তবর্ণ দেওয়ানি আদালতের আর্থিক বিচারিক এখতিয়ার বৃদ্ধির গেজেট প্রকাশ জেল-জরিমানার বিধান রেখে খাসজমি উদ্ধারে আসছে নতুন আইন রায়ে আমৃত্যু উল্লেখ না করলে যাবজ্জীবন ৩০ বছর বাংলার বাঘ শের ই বাংলা শীতে বিচারপতি-আইনজীবীদের পরতে হবে কালো কোট আমেরিকার নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কিছু তথ্যঃ- আওয়ামী যুবলীগ এর ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ৩ রা নভেম্বর বাঙালী জাতির ইতিহাসে এক বেদনাবিধুর দিন আইন, বিবেক, নীতির বাতিঘর ও জাতীয় ঐক্যের প্রতিক হিসাবে সকলের প্রিয়জন ব্যারিষ্টার রফিক-উল হক অধস্তন আদালতে অবকাশকালীন ছুটি কমলো ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই তালিকাভুক্তির দাবিতে প্রেস ক্লাবে শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের আমরণ অনশন ডিসেম্বরে সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন ছুটি বহাল বন্ধ হোক বিচারহীনতা এবং ধর্ষন গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সুস্থতার হার ৭৭ শতাংশ ছাড়িয়েছে অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির বর্তমান সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবু মোহাম্মদ (এএম) আমিন উদ্দিন অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম আর আমাদের মাঝে নেই ১৬ বছর কারাভোগের পর ফাঁসির আসামি খালাস বার কাউন্সিলে অ্যাডভোকেট তালিকাভুক্তির লিখিত পরীক্ষা স্থগিত অ্যাটর্নি জেনারেলের অবস্থার অবনতি, নেয়া হয়েছে আইসিউতে জামিন সংক্রান্ত বিষয়ে বিচারিক আদালতকে হাইকোর্টের চার নির্দেশনা ২৬ সেপ্টেম্বরই হচ্ছে বার কাউন্সিলের লিখিত পরীক্ষা অ্যাটর্নি জেনারেল করোনা আক্রান্ত, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি “উন্নয়নের রোলমডেল শেখ হাসিনা” আপিল বিভাগে নিয়োগ পেলেন দুই বিচারপতি করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৩১৬ সোমবার থেকে শ্রম ভবনে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা আন্দোলনরত ড্রাগন গ্রুপের শ্রমিকদের আদালত সুপ্রিম কোর্ট বারে তলবি সভার আহ্বানে ৩১ আইনজীবীর আবেদন চিরঞ্জীব বঙ্গবন্ধু করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৪১ জনের মৃত্যু এবং নতুন শনাক্ত আরো ৩৮২২ সুপ্রিম কোর্টের সব অবকাশকালীন ছুটি বাতিল জেনে নিন ১০(দশ)টি শ্রম আদালতের অধিক্ষেত্র আগামীকাল কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতিতে সপ্তাহে ৩ দিন চলবে চেম্বার আদালত করোনায় আরও ৩৪ জনের জনের মৃত্যু কোর্টের ভেতর সামাজিক দূরত্ব মানলেও সেকশনে হুড়োহুড়ি খুলনায় পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলন কর্মসূচিতে সিপিবি’র সংহতি ও একাত্মতা প্রকাশ জামিন-স্থগিতাদেশের কার্যকারিতার মেয়াদ বাড়লো ৩ দফা দাবিতে শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের সমাবেশ আগামী ২৩ আগষ্ট মাস্ক পরতে বাধ্য করা এবং সচেতনতা বাড়াতে মোবাইল কোর্ট বিকাশ দিয়ে উবারে পেমেন্ট সুবিধা চালু উচ্চ আদালতে করোনাকালীন ড্রেস কোড নির্ধারণ বার কাউন্সিলে লিখিত পরীক্ষা চেয়ে রিটের আদেশ আগামী সপ্তাহে উচ্চ আদালতে মামলা পরিচালনায় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা আগামী বুধবার থেকে খুলছে সুপ্রিম কোর্ট, ৩৫ টি ভার্চুয়াল এবং ১৮ টি রেগুলার বেঞ্চ গঠন করোনায় আরো ৩৯ জনের মৃত্যু সাবমেরিন ক্যাবলের সংযোগ বিচ্ছিন্ন, ইন্টারনেটে ধীরগতি দুর্নীতি অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা,বেঞ্চ অফিসারদের বদলির সিন্ধান্ত শ্রমিক নেতা খাইরুল মামুন মিন্টুর ৪০ তম জন্মদিন আজ কেউ কথা রাখেনি – সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় দেশে করোনায় ৩৩৩৩ জনের মৃত্যু নিয়মিত আদালতের পাশাপাশি ভার্চুয়াল মাধ্যমেও চলবে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৩৯ জনের মৃত্যু করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৩৩ জনের মৃত্যু ফুলকোর্ট সভা বৃহস্পতিবার: সুপ্রিম কোর্টের স্বাভাবিক বিচারকার্যক্রম প্রসঙ্গ করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৫০ জনের মৃত্যু জাহিদ হাসান ঈদ স্মৃতি — জাহিদ হাসান করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩০ জনের মৃত্যু বন্যা পরিস্থিতিতে সিপিবির গভীর উদ্বেগ সরকারের যথাযথ উদ্যোগের অভাবে হাহাকার বাড়ছে মনের কথা – আতিকুর রহমান করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ২৮ জনের মৃত্যু
শিরোনাম :
লেখা আহবান খেলার সাথী, রবিউল ইসলাম পদ্মা_সেতু,যা আপনার জানা উচিত স্মৃতির পাতায় একজন আবদুল গাফফার চৌধুরী শেখ হাসিনার দিল্লী নির্বাসনঃ কেমন ছিল দিনগুলো? বিপর্যস্ত চাষী, রবিউল ইসলাম আজ ১৭ মে বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন প্রকৃতির প্রেম – রবিউল ইসলাম স্মৃতিতে ৭১-এর ১৭ই এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস রবিউল ইসলাম স্মৃতি বড় মধুর আজ ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। ঘাতক জননী, রবিউল ইসলাম রবিউল ইসলামের কবিতা বাল্যবন্ধু রবিউল ইসলামের কবিতা,শোক সংবাদ রবিউল ইসলামের কবিতা পরিত্যক্ত বিশ্ববাসীকে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত তথ্য জানাতে বিশ্ব সফর করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধী রবিউল ইসলামের কবিতা, নারী রবিউল ইসলামের কবিতা, মহাজন পুর নির্ঘুম শহর– দালান জাহান তুমি শোক নও,শক্তি How to create a profilebacklink হে জ্যোতির্ময় ১১ আগষ্ট থেকে চালু হচ্ছে হাইকোর্ট বিভাগের সকল বেঞ্চ ৮-১২ই আগষ্ট পর্যন্ত বিচারকাজ পরিচালনায় হাইকোর্ট বিভাগে ১২ টি বেঞ্চ গঠন রবিবার থেকে চালু হচ্ছে আপীল বিভাগের বিচারিক কার্যক্রম মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলা চিঠি হাইকোর্টে নতুন আরও ৯ বেঞ্চ গঠন একজন বিচক্ষণ বাদশার গল্প সিপিবি’র প্রাথমিক বাজেট প্রতিক্রিয়া অর্থ আয়ের পথ সহজ করল ইউটিউব! করোনায় ৪০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৬৭৫ ২৪ ঘণ্টায় ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৩৫৪ ৩৫ ভার্চুয়াল ও ১৮ রেগুলার বেঞ্চ চেয়ে প্রধান বিচারপতিকে স্মারকলিপি ২৪ ঘণ্টায় ২৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৬৩ আজ মৃত্যু ৩৩ পরীক্ষা ১৪১৮৪ শনাক্ত ১২৩০ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আপাতত গাছ কাটা নিষিদ্ধ করেছে হাইকোর্ট আদালতের ইংরেজি রায় বাংলা করবে ‘আমার ভাষা’ সফটওয়্যার জেনে নিন বাংলায় ব্যবহৃত ১২৮টি যুক্তবর্ণ দেওয়ানি আদালতের আর্থিক বিচারিক এখতিয়ার বৃদ্ধির গেজেট প্রকাশ জেল-জরিমানার বিধান রেখে খাসজমি উদ্ধারে আসছে নতুন আইন রায়ে আমৃত্যু উল্লেখ না করলে যাবজ্জীবন ৩০ বছর বাংলার বাঘ শের ই বাংলা শীতে বিচারপতি-আইনজীবীদের পরতে হবে কালো কোট আমেরিকার নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কিছু তথ্যঃ- আওয়ামী যুবলীগ এর ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ৩ রা নভেম্বর বাঙালী জাতির ইতিহাসে এক বেদনাবিধুর দিন আইন, বিবেক, নীতির বাতিঘর ও জাতীয় ঐক্যের প্রতিক হিসাবে সকলের প্রিয়জন ব্যারিষ্টার রফিক-উল হক অধস্তন আদালতে অবকাশকালীন ছুটি কমলো ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই তালিকাভুক্তির দাবিতে প্রেস ক্লাবে শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের আমরণ অনশন ডিসেম্বরে সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন ছুটি বহাল বন্ধ হোক বিচারহীনতা এবং ধর্ষন গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সুস্থতার হার ৭৭ শতাংশ ছাড়িয়েছে অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির বর্তমান সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবু মোহাম্মদ (এএম) আমিন উদ্দিন অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম আর আমাদের মাঝে নেই ১৬ বছর কারাভোগের পর ফাঁসির আসামি খালাস বার কাউন্সিলে অ্যাডভোকেট তালিকাভুক্তির লিখিত পরীক্ষা স্থগিত অ্যাটর্নি জেনারেলের অবস্থার অবনতি, নেয়া হয়েছে আইসিউতে জামিন সংক্রান্ত বিষয়ে বিচারিক আদালতকে হাইকোর্টের চার নির্দেশনা ২৬ সেপ্টেম্বরই হচ্ছে বার কাউন্সিলের লিখিত পরীক্ষা অ্যাটর্নি জেনারেল করোনা আক্রান্ত, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি “উন্নয়নের রোলমডেল শেখ হাসিনা” আপিল বিভাগে নিয়োগ পেলেন দুই বিচারপতি করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৩১৬ সোমবার থেকে শ্রম ভবনে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা আন্দোলনরত ড্রাগন গ্রুপের শ্রমিকদের আদালত সুপ্রিম কোর্ট বারে তলবি সভার আহ্বানে ৩১ আইনজীবীর আবেদন চিরঞ্জীব বঙ্গবন্ধু করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৪১ জনের মৃত্যু এবং নতুন শনাক্ত আরো ৩৮২২ সুপ্রিম কোর্টের সব অবকাশকালীন ছুটি বাতিল জেনে নিন ১০(দশ)টি শ্রম আদালতের অধিক্ষেত্র আগামীকাল কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতিতে সপ্তাহে ৩ দিন চলবে চেম্বার আদালত করোনায় আরও ৩৪ জনের জনের মৃত্যু কোর্টের ভেতর সামাজিক দূরত্ব মানলেও সেকশনে হুড়োহুড়ি খুলনায় পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলন কর্মসূচিতে সিপিবি’র সংহতি ও একাত্মতা প্রকাশ জামিন-স্থগিতাদেশের কার্যকারিতার মেয়াদ বাড়লো ৩ দফা দাবিতে শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের সমাবেশ আগামী ২৩ আগষ্ট মাস্ক পরতে বাধ্য করা এবং সচেতনতা বাড়াতে মোবাইল কোর্ট বিকাশ দিয়ে উবারে পেমেন্ট সুবিধা চালু উচ্চ আদালতে করোনাকালীন ড্রেস কোড নির্ধারণ বার কাউন্সিলে লিখিত পরীক্ষা চেয়ে রিটের আদেশ আগামী সপ্তাহে উচ্চ আদালতে মামলা পরিচালনায় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা আগামী বুধবার থেকে খুলছে সুপ্রিম কোর্ট, ৩৫ টি ভার্চুয়াল এবং ১৮ টি রেগুলার বেঞ্চ গঠন করোনায় আরো ৩৯ জনের মৃত্যু সাবমেরিন ক্যাবলের সংযোগ বিচ্ছিন্ন, ইন্টারনেটে ধীরগতি দুর্নীতি অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা,বেঞ্চ অফিসারদের বদলির সিন্ধান্ত শ্রমিক নেতা খাইরুল মামুন মিন্টুর ৪০ তম জন্মদিন আজ কেউ কথা রাখেনি – সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় দেশে করোনায় ৩৩৩৩ জনের মৃত্যু নিয়মিত আদালতের পাশাপাশি ভার্চুয়াল মাধ্যমেও চলবে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৩৯ জনের মৃত্যু করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৩৩ জনের মৃত্যু ফুলকোর্ট সভা বৃহস্পতিবার: সুপ্রিম কোর্টের স্বাভাবিক বিচারকার্যক্রম প্রসঙ্গ করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৫০ জনের মৃত্যু জাহিদ হাসান ঈদ স্মৃতি — জাহিদ হাসান করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩০ জনের মৃত্যু বন্যা পরিস্থিতিতে সিপিবির গভীর উদ্বেগ সরকারের যথাযথ উদ্যোগের অভাবে হাহাকার বাড়ছে মনের কথা – আতিকুর রহমান করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ২৮ জনের মৃত্যু

স্মৃতিতে ৭১-এর ১৭ই এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস

  • প্রকাশ : রবিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২২
  • ১০৫ বার পড়া হয়েছে
আলহাজ্ব মোঃ জয়নাল আবেদীন খান
১৭৫৭ সালের ২৩ শে জুন পলাশীর আম্রকাননে বাংলার যে স্বাধীনতার সূর্য অস্তমিত হয়, তারই সন্নিকটে ১৯৭১ সালের ১৭ই এপ্রিল মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে সেই সূর্য পুর্নউদিত হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামাস্কিত মুজিবনগর বাংলাদেশের প্রথম রাজধানী।
একাত্তরের ১৭ এপ্রিল মেহেরপুরের মুজিবনগরে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সরকারের আনুষ্ঠানিক আত্মপ্রকাশ বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের এক উ্জ্জ্বলতম অধ্যায়। আর এই ইতিহাসের স্রষ্টা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দীন আহমেদ, ক্যাপ্টেন এম মুনসুর আলী ও এ.এইচ.এম. কামরুজ্জামান-এর মত অনন্যসাধারণ ইতিহাস পুরুষগণ। মুজিবনগরের পথ ধরেই বাঙালি স্বাধীনতার অরুণোদয় হয়েছে। আমাদের মুক্তিসংগ্রাম যদি কোন মহাকাব্য হয় তাহলে মুজিবনগর যেন সেই মহাকাব্যের প্রথম পাতা। সে হিসেবে ১৭ এপ্রিল জাতীয় দিবসের মর্যাদায় পর্যবসিত হোক মুজিবনগরবাসীর এটি প্রাণের দাবী।
বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিম সীমান্তের ছোট্ট একটি জেলা মেহেরপুর। এ জেলার রয়েছে প্রায় দুই হাজার বছরের প্রাচীন ইতিহাস ও ঐতিহ্য। বিশেষত ১৯৭১ সালে স্বাধীন বাংলাদেশর অভ্যুদয়ের ঘটনায় মেহেরপুরের মুিজবনগর সূতিকাগারের ভূমিকা পালন করায় এ জেলার ইতিহাস হয়েছে অত্যন্ত গৌরবোজ্জল। সেই অর্থে বলা যায় ইতিহাসের বাঁক বদলের ধারায় গোটা বাঙালি জাতির একটি সুনির্দিষ্ট ভৌগলিক পরিচয়কে রাজনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে একাত্তরের মুজিবনগর। স্বাধীন বাংলাদেশে দীর্ঘকাল মুজিবনগর তার প্রাপ্য মর্যাদা পায়নি। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর শুরু হয় মুজিবনগর কমপ্লেক্সের কাজ। পরবর্তীতে ২০০১ সালের নির্বাচনের পর চারদলীয় জোট সরকার মুজিবনগর কমপ্লেক্সের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা বন্ধ করে দেয়। এরপর ২০০৮ সালের নিবার্চ নে আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসলে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে পুনরায় এগিয়ে চলে কমপ্লেক্সের কাজ। সেইসাথে মেহেরপুর-মুজিবনগরের উন্নয়ন ত্বরান্বিত হয়। বাঙালি জাতির হাজার বছরের ইতিহাস ‘‘৭১ এর ১৭ই এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস-শ্রেষ্ঠতম অর্জন এবং স্মরণীয় দিন। আনন্দ, উচ্ছলতা আর পবিত্রতম দিন ।
#আমার_কথাঃ লেখার আগে আমি পরম শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করি সবর্কালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের মহানস্থপতি, বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুশেখ মুজিবুর রহমানকে। স্মরণ করি জাতীয় চার নেতা- সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দীন আহমদ, এম. মনসুর আলী এবং এ.এইচ.এম. কামরুজ্জামান-কে যাঁদের নেতৃত্বে সেদিন মুজিবনগর সরকার গঠিত হয়েছিল। ১৭ই এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের সাথে তাদের নাম মিশে আছে।
#স্মৃতিকথাঃ লিখতে বসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুশেখ মুজিবুর রহমান কে অতি নিকট থেকে দেখা ১৯৭০ সালের ৭ ও ১৭ই ডিসেম্বর জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনের আগে ১৮ই নভেম্বর দিনটি ছিল বধুবার।এখনকার মেহেরপুর শহিদ সামসুজ্জোহা পার্কে এক নির্বাচনী জনসভায় বঙ্গবন্ধুকে আমি প্রথম দেখি। জনসভার শেষ মূহুর্তে মেহেরপুর মহকুমা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আঃ কাঃ ম ইদরিস আলী আমার বাবা আবলু হোসেন খানকে বলে, যে, চাচা আপনি জয়নাল কে নিয়ে পঞ্জাতন গাজী চাচার বাড়িতে যান। এইখানে বঙ্গবন্ধু খাওয়া দাওয়া করবেন। তাড়াতাড়ি আমি বাবার সাথে ঐ বাড়িতে যাই এবং বঙ্গবন্ধু সহ তাঁর সফর সঙ্গীদের খাবার পরিবেশন করি এবং আরও নিকট থেকে বঙ্গবন্ধকে দেখার সালাম করার সৌভাগ্য হয় আমার। ১৯৭৪ সালে কুষ্টিয়া সাকির্ট হাউজে অবনতমস্তকে সালাম করে হ্যান্ডসেক করার করার মত বিরল ঘটনার কথা আজ আমার বার বার মনে পড়ছে। ১৯৭৫ সালের এপ্রিলের ২ তারিখে মরহুম সহিউদ্দীন বিশাস এম.পি এর নের্তৃত্বে আ:ক:ম: ইদরিস আলী, জালাল উদ্দীন, ইসমাইল হোসেন মন্ডল (মানিক মিয়া), সিরাজলু ইসলাম (পটল মিয়া) ও আমি মোঃ জয়নাল আবেদীন খান, চেয়ারম্যান, বাগোয়ান ইউনিয়ন পরিষদ ঢাকার ৩২ নং বাড়িতে মহামান্য রাষ্টপ্রতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুশেখ মুিজবর রহমানকে মুজিবনগরে নিয়ে আসার জন্য দাওয়াত দিতে গিয়ে তৃতীয় দফায় বঙ্গবন্ধুকে অতি নিকট থেকে দেখে সালাম করার মত সৌভাগ্য হয়েছিল আমার। সত্যিই তিনি ছিলেন বাঙালির জাতির পিতা।
১৬ এপ্রিল ১৯৭১ সাল রোজ শুক্রবার। তৎকালীন বাগগোয়ান সংগ্রাম কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমি মো: জয়নাল আবেদীন খাঁন, ভবেরপাড়া সংগ্রাম কমিটির সভাপতি আব্দুল মোমিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আইয়বূ হোসেন মন্ডল বাইসাইকেলে চড়ে বিকেল বেলা তৎকালীন মেহেরপুর মহকুমা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম.এন.এ জনাব সহিউদ্দিন সাহেবের মেহেরপুরস্থ বাসভবনে যায়। বাসার বাহিরে আমরা আরও কয়েকজন নেতা-কর্মী র সাথে সেই সময়কার শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি নিয়ে কিছু কথা বলছি-এমন সময় মেহরেপুর মহকুমা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো: ইসমাইল হোসেন, সহ-সভাপতি আঃকাঃম ইদ্রিস আলী ও সাংগঠনিক সম্পাদক মো: জালাল উদ্দিন আমাদের এম.এন.এ সাহেবের বাসার ভিতর ডেকে নিয়ে গেলেন। আমাদের বলা হলো আগামীকাল ১৭ই এপ্রিল সকাল ৯:০০টার সময় বৈদ্যনাথতলার আমবাগানে বাংলাদেশের প্রথম সরকার শপথ নিবে, তোমাদের একটি মঞ্চ তৈরী করে উপরিভাগে একটি টেবিল ও সামনে কয়েকটি চেয়ার রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। আমরা আনন্দে উদ্বেলিত হয়ে তৎক্ষনাত বৈদ্যনাথতলা সংলগ্ন ভবেরপাড়া গ্রামে চলে এসে সুশীল মন্ডল, পিন্টু বিশ্বাস, রফিক মাস্টার, সৈয়দ মাস্টারসহ বেশ কয়েক জন প্রায় সারারাত ধরে স্থানীয় মিশন ও আশপাশের মানুষের রাড়ী থেকে ৪টি চৌকি, ১টি টেবিল এবং ৩৪টি কাঠের চেয়ার সংগ্রহ করে মঞ্চ তৈরীসহ সকল প্রস্তুতি নিয়ে রাখলাম। দুই-একটি চেয়ারের আবার হাতলও ভাঙ্গা ছিল। সেই সময়ে ভবেরপাড়া মিশনের ফাদার ফ্রান্সীস, সিস্টার ক্যাথারিনা এর সহযোগীতার কথা ভুলবার নয়।
১৭ই এপ্রিল সেই মহেন্দ্রক্ষণ। দিনটি ছিল শনিবার। ঠিক সকাল ৯টা ১৫মিনিটের দিকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অনেক গাড়ী এসে বৈদ্যনাথতলা আমবাগনটিকে ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা বেষ্টনী গড়ে তোলে ও গাড়ী থেকে বেশ কয়েক ড্রাম মিস্টি আমবাগানের একটি স্থানে নামিয়ে রাখেন, যা পরবর্তিতে শপথ গ্রহণ শেষে উপস্থিত জনসাধারণের মাঝে বিতরণ করা হয়। বি.এস.এফ-এর কিছু গাড়ীতে করে জাতীয় নেতৃবৃন্দের বসার জন্য কিছুসংখ্যক চেয়ার আনা হয়। এর পরপরই ৯টা ৩০মিনিটেরে দিকে- প্রায় ১০০টির মত গাড়ীতে দেশী বিদেশী অনেক সাংবাদিকসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দ সভাস্থলে এসেই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান শুরুর ব্যবস্থা নিলেন। প্রথমে আমরা ক’ জনের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করলেন সৈয়দ নজরুল ইসলাম। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে মুজিবনগর আম্রকাননে অধ্যাপক ইউসুফ আলী আনুষ্ঠানিক স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র (প্রোক্লেমেশন অব ইন্ডিপেন্ডেন্স) পাঠ করেন এবং সাংবিধানিক পরিষদের চীপ হুইপ হিসেবে বাংলাদেশের সার্বভৌম সর্বোচ্চ সংস্থারূপে নবগঠিত সরকারের শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। বাঙালির জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে রাষ্ট্রপতি, সৈয়দ নজরুল ইসলামকে উপ-রাষ্ট্রপতি, তাজউদ্দিন আহমেদ কে প্রধানমন্ত্রী,ক্যাপ্টেন এম. মনছুর আলীকে অর্থমন্ত্রী, এ.এইচ.এম. কামরুজ্জামান ছিলেন স্বরাষ্ট্র, ত্রান ও পুনর্বাসন মন্ত্রী। মন্ত্রী সভার সদস্যদের সঙ্গে এম.এ.জি ওসমানীর নাম অতিনিবিড় ভাবে যুক্ত হয়ে যায়। মুজিবনগরে গঠিত গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার তাকে আনুষ্ঠানিক ভাবে স্বশস্ত্র বাহিনীর প্রধান হিসেবে নিয়োগ দানের কথা ঘোষণা করেন।
বঙ্গবন্ধু অবর্তমানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের উপ-রাষ্ট্রপতি, সৈয়দ নজরুল ইসলাম অস্থায়ী রাষ্টপতি হিসেবে ১৭ই এপ্রিল মুজিবনগরের সেই বিশাল সমাবেশে জনতার উদ্দেশ্য তার ভাষণে বলেন যে আজ এই মুজিবনগরে একটি স্বাধীন জাতি জন্ম নিল। বিগত ২৪ বছর যাবৎ বাংলার মানুষ তার নিজস্ব সংস্কৃতি নিজস্ব ঐতিহ্য, নিজস্ব নেতাদের নিয়ে এগুতে চেয়েছেন। কিন্তু পশ্চিম পাকিস্তানী কায়েমী স্বার্থবাদীরা তা হতে দেয়নি। তারা আমাদের উপর আক্রমন চালিয়েছে। আমরা নিয়মতান্ত্রিক পথে এগুতে চেয়েছিলাম, কিন্তু তাতেও তারা বাধার সৃষ্টি করে আমাদের উপর চালানো ববর্র আক্রমণ, তাই আমরা আজ মরণপণ যুদ্ধে নেমেছি। এ যুদ্ধে জয় আমাদের অনিবার্য।
প্রধানমন্ত্রী জনাব তাজউদ্দীন আহমেদ মুজিবনগরের শপথ অনুষ্ঠানে বলেন যে আজ হোক আর কাল হোক বাংলাদেশে একদিন স্বাধীন হবেই। আমরা পাকিস্থান হানাদার বাহিনীকে বিতাড়ন করবোই। আজ না জিতি কাল জিতবো। কাল না জিতি পরশু জিতবোই। বাংলাদেশে ইতিহাসের জঘন্যতম গণহত্যার ঘটনা দেখেও বিশ্বের মুসলিম রাষ্টবর্গ আজ যে নিরবতা অবলম্বন করছেন তার জন্য আমি গভীরভাবে দুঃখিত। আমি প্রশ্ন করতে চাই লক্ষ লক্ষ নিরীহ নিরস্ত্র মানুষকে বিনা কারণে হত্যা করাকে ইসলাম অনুমোদন করে কী? মসজিদ, মন্দির বা গীর্জা ধ্বংশ করার কোন বিধান কি ইসলামে আছে? বাংলাদেশের মাটিত আর কোন সাম্প্রদায়িকতা মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারবে না। হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রীষ্টান কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে তাদের মাতৃভূমিকে মুক্ত করতে যুদ্ধ করছে। নিরীহ, নিরস্ত্র মানুষকে হত্যা করে সাড়ে সাত কোটি বাঙালির মুক্তি সংগ্রাম কে স্তব্ধ করা যাবে না। পৃথিবীর মানচিত্রে আজ যে নতুন রাষ্ট্রের সংযোজন হল তা চিরদিন থাকবে। এমন কোন শক্তি নেই যে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের অস্তিত্ব কে বিশ্বের মানচিত্র থেকে মুছে ফেলতে পারে।
শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ ৭১-এর মার্চ মাসের ৩০ তারিখে কুষ্টিয়ার তৎকালীন গণপরিষদ সদস্য ব্যারিষ্টার এম আমিরুল ইসলাম কে সাথে নিয়ে চুয়াডাঙ্গা, দামুড়হুদা হয়ে ওপারে চেংড়াখালী বিএসএফ ক্যাম্পে যান। ক্যাম্প কর্তৃপক্ষ তাদের গার্ড অব অনার প্রদান করেন। ঐদিনই কোলকাতায় গিয়ে ১ এপ্রিল তাজউদ্দিন আহমদ ও ব্যারিস্টার আমিরুল ইসলাম এম.এন.এ ভারতের রাজধানী দিল্লী পৌছে যান। ৪ এপ্রিল ও ৬ এপ্রিল ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধীর সরকারের সাথে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের প্রথম সরকার গঠন ও মুক্তিযুদ্ধে সাবির্ক সহায়তা প্রধানের ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা শেষে একটি ঐক্যমত সৃষ্টি হয়। ৮ এপ্রিল কোলকাতায় ফিরে একটি গেস্ট হাউজ-এ উপস্থিত জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য সহ যুব ও ছাত্র নেতৃবুন্দের সাথে বৈঠক করেন। ৯ এপ্রিল ৬ সীটের একটি ছোট্ট প্লেনে তাজউদ্দীন আহমদ,ব্যারিস্টার এম.আমিরুল ইসলাম সহ আরো কয়েক জন আওয়ামীলীগ নেতা শিলিগুড়ি পৌঁছান । তোরা পাহাড়ের নীচে এক গেস্ট হাউজ থেকে সৈয়দ নজরুল ইসলাম ও টাঙ্গাইলের আব্দুল মান্নান কে নিয়ে ১০ এপ্রিল আগরতলায় উপস্থিত হন। ঐদিনই রাত্রে আওয়ামীলীগের সংসদীয় পার্টির সভা করে সরকার গঠন করা সহ দায়িত্বপ্রাপ্ত হুইপ ব্যারিস্টার এম আমিরুল ইসলাম এম.এন.এ রচিত স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র “মুজিবনগর সনদ” অনুমোদন দেওয়া হয়। তাৎকালীন কুষ্টিয়া জেলার জাতীয় পরিষদ সদস্য ব্যারিস্টার এম.আমিরুল ইসলাম , এ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান আক্কাস,সহিউদ্দীন বিশাস, ব্যারিস্টার আবুআহম্মেদ, আফজালুর রশিদ (বাদল রশিদ) প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া, এ্যাডভোকেট আহসান উল্লাহ, ডাক্তার আসহাবলু হক (হেবা) এ্যাডভোকেট ইউনুস আলী, মো: নুরুল হক সহ মেহেরপুর মহকুমা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো: ইসমাইল হোসেন, সহ-সভাপতি আঃকাঃম ইদ্রিস আলী, সহ-সভাপতি ডাক্তার আবু আব্দুল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মো: জালাল উদ্দীন, কোষাধ্যক্ষ ডাক্তার আব্দুর রশিদ, সাহাবাজ উদ্দীন লিজ্জু, একে আসকারী (পটল) খাদেমুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম (পটল মিয়া), ইসমাইল হোসেন মন্ডল (মানিক মিয়া), মুজিবনগর এলাকায় দারিয়াপুরের ডা: আলহাজ¦ শামছদু হুদা, ওয়াজেদ আলী, বাকের আলী, কলিম উদ্দিন, এ.বি.এম. আসাদুল হক, আলীজান মাস্টার, ইউনূস আলীজান মাস্টার, মোকাম আলী, মোজাম্মেল হক মাস্টার, সোনাপুরের এ্যাডভোকেট রুস্তম আলী, এ্যাডভোকেট আবুতৈয়ব, আকরব আলী মাস্টার, নাজিরাকোনা গ্রামের জামাত আলী মোল্লা, বাগোয়ানের সংগ্রাম কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলাম, শাহাবুদ্দীন (সেন্টু), মতিয়ার রহমান, আনন্দবাস গ্রামের রফিক উদ্দিন, মানিকনগরের দোয়াজ আলী মাস্টার এদের সাবির্ক সহযোগীতায় তত্ত্বাবধােন মেহেরপুর মহকমুার এস.ডি.ও তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী এর তত্ত্ববধানে ১৭ই এপ্রিল মুজিবনগরে এই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ঝিনাইদহের এস.ডি.পি.ও মাহাবুব উদ্দিনে নেতৃত্বে ভবের পাড়া গ্রামের ১২জন আনসার কর্তৃক মুজিবনগর সরকারের ১ম উপ-রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলামকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা, সফল রাষ্টনায়ক, দেশরত জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মুজিবনগরে প্রধান অনুষ্ঠানসহ জাতীয়ভাবে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় দেশব্যাপী ব্যাপকভাবে পালন করছে। সেদিন আমরা কয়েকজন ছাত্র যারা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের প্রথম সরকারের মহামান্য উপ-রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য মন্ত্রীদের গাড়িতে বাংলাদেশর মানচিত্র খোঁচিত পতাকা বেঁধে দিয়ে ছিলাম, সেই পতাকাই আজ অবিরাম ভাবে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ সভার সকল মাননীয় মন্ত্রীদের গাড়ীতে বিভিন্ন অফিসে, বাড়িতে পৎপৎ করে উড়ছে।
ঐতিহাসিক এই দিনে কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করছি ভারতের প্রয়াত মহীয়সী প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধী ও ভারতীয় বীর জনতাকে যারা মুজিবনগর সরকারকে মুক্তিযোদ্ধাদের ট্রেনিং এর ব্যবস্থা করে এবং প্রায় এক কোটি শরণার্থীদের আশয়্র দিয়ে সহযোগীতা করেছে। আমি তৎকালীন ভারতীয় সরকার ও জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
আজ আমরা একটাই দাবী-মুজিবনগর কে বাংলাদেশের প্রথম রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করা হোক। তাকে তার মর্যাদায় অধিষ্ঠিত করে বছরে অন্ততÍ একটি ক্যাবিনেট মিটিং মুিজবনগরে করার ব্যবস্থা নেওয়া হলে বাংলাদেশের মানুষ খুশী হবে। মুজিবনগর স্থলবন্দর, মুজিবনগর ইপিজেড/বাণিজ্যিক জোন, মুজিবনগর মেজিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, মুজিবনগর বিশ্ববিদ্যালয় ধীনতা পরবর্তী সময় থেকে এই এলাকায় মানুষের দীর্ঘদিনের দাবী যা আজও পুরণ হয়নি।
প্রশাসন বিকেন্দ্রীকরণ এখন সময়ের দাবী। জনসেবা মানুয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে- মেহেরপুর, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ, চুয়াডাঙ্গা ও মাগুড়া-কে নিয়ে মুজিবনগরের একটি প্রশাসনিক বিভাগ সৃষ্টি করে তার দপ্তর মুজিনগরে প্রতিষ্ঠা করা যায় কি-না তাও আমার মনে হয় এই মুহূর্তে আমাদের ভেবে দেখা দরকার। একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আমার এ দাবী সকল মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রদীপ্ত বাঙালি জাতির দাবী হিসেবে পরিগণিত হোক।
“মুজিবনগর স্মৃতির মিনার এদেশের পরিচয়
ইতিহাস বলে বাঙালি কখনো মাথা নোয়াবার নয়।
পাকিস্থানী শাষণ-শোষণে জীবন যখন রুদ্ধ
তখনই সবাই রুখে দাড়িয়েছে,এসেছে মুক্তিযুদ্ধ
১৭ এপ্রিল মুজিবনগর আম্রকাননে এসে
শত সংগ্রামের লক্ষ্য যেন মেশে”

———— বীর মুক্তিযোদ্ধা

আলহাজ্ব মোঃ জয়নাল আবেদীন খান
সাবেক এম,পি-৭৩ মেহেরপুর-১

সাবেক সভাপতি জেলা আওয়ামীলীগ,
মেহেরপুর।

 208 total views,  3 views today

মন্তব্য করুন

আপনার লেখা প্রকাশ করুন

লেখা গুলো ই-মেইলে পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

এই বিষয়টি আপনার যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

মন্তব্য বন্ধ আছে।

এই বিভাগের আরো লেখা
© All rights reserved © 2019 www.atikurbd.com
Customized BY NewsTheme