1. atikur.bdco@gmail.com : admin :
ঈদুল আযহা - মোঃ দেলোয়ার হোসেন - www.atikurbd.com
শিরোনাম :
করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৩৯ জনের মৃত্যু করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৩৩ জনের মৃত্যু ফুলকোর্ট সভা বৃহস্পতিবার: সুপ্রিম কোর্টের স্বাভাবিক বিচারকার্যক্রম প্রসঙ্গ করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৫০ জনের মৃত্যু জাহিদ হাসান ঈদ স্মৃতি — জাহিদ হাসান করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩০ জনের মৃত্যু বন্যা পরিস্থিতিতে সিপিবির গভীর উদ্বেগ সরকারের যথাযথ উদ্যোগের অভাবে হাহাকার বাড়ছে মনের কথা – আতিকুর রহমান করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ২৮ জনের মৃত্যু ৫ আগস্ট থেকে খুলছে সব নিম্ন আদালত ঈদের পর ৬ আগস্ট থেকে চেম্বার আদালত ভার্চ্যুয়ালি চলবে মোঃ দেলোয়ার হোসেন ঈদুল আযহা — মোঃ দেলোয়ার হোসেন ★★প্রসঙ্গঃ কোরবানি★★ লেখা প্রতিযোগিতা করোনা ভাইরাসের কারণে চার মাস বন্ধ থেকে ঈদুল আযহার পরে খুলছে বাংলাদেশের আদালত: আইনমন্ত্রী অবিলম্বে নিয়মিত আদালত চালু করতে প্রধান বিচারপতির কাছে আবেদন আইনজীবী অন্তর্ভুক্তির লিখিত পরীক্ষা ২৬ সেপ্টেম্বর করোনায় আরো ৩৫ জনের মৃত্যু অবকাশকালীন ছুটিতে হাইকোর্টে ১২ ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ গঠন ঈদের ছুটিতে আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থল ত্যাগ না করার নির্দেশ আলহাজ্ব মোঃ জয়নাল আবেদীন খান মান্না দে’র কালজয়ী গান কফি হাউজের অন্যতম চরিত্র ঢাকার মঈদুল এখন গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসাধীন। বঙ্গভবন থেকে গণভবন মানবপ্রাচীর’ কর্মসূচি সফল করার আহ্বান জানিয়েছে সিপিবি গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র সাভার আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির উদ্যোগে মানববন্ধন পৃথিবীর পথে পথে স্বাস্থ্যমন্ত্রী, মহাপরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের অপসারণের দাবিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় ঘেরাও বিষন্নতায় ঘেরা এই পৃথিবী করোনায় আরো ৪১ জনের মৃত্যু তালিকাভুক্তির দাবিতে বার কাউন্সিলের সামনে শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের অবস্থান, অসুস্থ-৭ এখনই স্বাভাবিক বিচার ব্যবস্থা ফিরছে না আদালতে। করোনায় আরো ৫৫ জনের মৃত্যু রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিন্ধান্ত বাতিল করে জাতীয়স্বার্থে পাটকল চালু রেখে আধুনিকায়ন ও লাভজনক কর -প্রগতিশীল সংগঠনসমূহ বিক্ষোভ সমাবেশে সিপিবি’র নেতৃবৃন্দ রাষ্ট্রীয় পাটকলসমূহ বন্ধ ঘোষণা মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গীকারের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা একাধিকবার বিদ্যুৎ-জ্বালানির দাম বাড়ানোর স্বার্থে সংসদে বিল উত্থাপনের প্রতিবাদ সিপিবির আহুত ভালোবাসা – মোহাম্মদ জাফর সাদেক সরকারের গণবিরোধী সিদ্ধান্তের বিরদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলতে সিপিবি’র ডাক ২৪ ঘন্টায় করোনায় আরো ৪০ জনের মৃত্যু পৃথিবীর সৃষ্টি রহস্য – পর্ব ১ রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল বন্ধের নয়া ষড়যন্ত্রে বাম জোটের উদ্বেগ ও প্রতিবাদ দালান জাহান মোঃ জাফর সাদেক জন্মদাগ – মোঃ জাফর সাদেক করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ৩৯ জনের মৃত্যু ভার্চুয়াল আদালত অব্যাহত রাখতে সংসদে খসড়া আইন উত্থাপন সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর ৮৫-তে পদার্পণ করোনাকালে শ্রমিক ছাঁটাই-নির্যাতন বন্ধের দাবি সাংগ্রাম, গৌরব , উন্নয়ন, ও ঐতিহ্যের ৭১ বছর ইতিহাস….. দেশে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দেড় হাজার ছাড়াল দেশের ১০ জেলার ২৭ এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করোনায় ২৪ ঘন্টায় ৩৯ জনের মৃত্যু করোনায় ২৪ ঘন্টায় ৩৭ জনের মৃত্যু সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সাংবাদিক কামাল লোহানী মারা গেছেন নিপুন নগরী ইসরাত জাহান মোঃ আতিকুর রহমান রোববার তিন ঘণ্টা সূর্যের ওপর অন্ধকার থাকবে! বীর মুক্তিযোদ্ধা মনজুর আলী ননতুর মৃত্যুতে সিপিবি’র শোক প্রকাশ ব্যর্থ প্রেম – সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় করোনাভাইরাসে মৃত্যু আরও ৩৮ জনের আইনজীবীদের করোনা চিকিৎসায় তিন হাসপাতাল করোনায় ২৪ ঘন্টায় ৪৩ জনের মৃত্যু ভার্চ‌্যুয়াল পদ্ধ‌তি‌তেই চল‌বে সারাদেশের অধস্তন আদাল‌তের বিচার কার্যক্রম। করোনায় ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৫৩ জনের মৃত্যু ইয়েলোতে নয়, রেড জোনেই থাকবে সাধারণ ছুটি লাল (রেড) ও হলুদ (ইয়োলো) জোনে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। ‘রেড জোন ‘ হিসেবে চিহ্নিত যেসব এলাকা চে গুয়েভারার জীবনী করোনাভাইরাসে ২৪ ঘণ্টায় ৪৪ মৃত্যু সিপিবির প্রাথমিক বাজেট-প্রতিক্রিয়া করোনায় ২৪ ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৪৬ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৩৪৭১ আরজ আলী মাতুব্বর কাজী নজরুল ইসলাম সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় হঠাৎ নীরার জন্য – সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় করোনায় মৃত্যুর মিছিলে আরও ৩৭ জন ভার্চ্যুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের চেম্বার কোর্টে শুনানি চলবে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩৭ আক্রান্ত ৩১৯০ করোনা পরিস্থিতিতে বাজেট ঘোষণার প্রাক্কালে সরকারের প্রতি সিপিবি লেখা আহবান প্রাক বাজেট কর্মসূচিতে যুব ইউনিয়নের দাবী অবিলম্বে এনজিও ঋণের কিস্তি আদায় বন্ধ করার দাবি জানিয়েছে সিপিবি ভাষাসৈনিক কমরেড মিরান উদ্দিন মাস্টারের মৃত্যুতে সিপিবির শোক করোনায় ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৪৫ জনের মৃত্যুর রেকর্ড মানুষ – কাজী নজরুল ইসলাম জোনিং করে লকডাউনের প্রস্তাবে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন এসএসসি : ফল পুনর্মূল্যায়নে রেকর্ডসংখ্যক আবেদন করোনায় ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৪২ আক্রান্ত ২৭৩৫ ঢাকার ৩৮ এলাকা আংশিক লকডাউন ঘোষণা করোনায় ২৪ ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৪২ মৃত্যু রেকর্ড রাজধানীর দুই এলাকা দিয়ে কাল শুরু হচ্ছে জোলা ভিত্তিক লকডাউনের কাজ শ্রমিক ছাঁটাই করা হলে, আপনিও ছাঁটাই হয়ে যাবেন’- মন্টু ঘোষ বিজিএমইএ-র বক্তব্যে সিপিবির হুঁশিয়ারি শ্রমিক ছাঁটাইয়ের পরিণতি হবে ভয়াবহ করোনায় ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩৫, আক্রান্ত ২৬৩৫ অমানবিক গার্মেন্ট মালিকরা –কে এম মিন্টু পোশাক কারখানায় শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষনা মুনাফালোভী মালিকদের নগ্ন চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ- টিইউসি। জুন থেকেই পোশাক কারখানায় শ্রমিক ছাঁটাই: রুবানা হক করোনা উপসর্গ দেখা দিলে কোথায় যাবেন জেনে নিন করোনা ভাইরাসে ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩০ নতুন আক্রান্ত ২৮২৮
ঘোষণা :
আমাদের ওয়েব সাইটের পক্ষ থেকে সকলকে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা।          সকল সম্মানিত লেখক - লেখিকাদের সবিনয়  দৃষ্টি আকর্ষণ করা হচ্ছে।  আমাদের এই ওয়েবসাইটে বিভিন্ন টপিকের উপর আপনাদের  বিভিন্ন প্রবন্ধ,  গল্প, উপন্যাস, কবিতা,  ভ্রমণ কাহিনী ইত্যাদি পাঠাতে পারবেন। আপনাদের সমস্ত মূল্যবান লেখা সমূহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। যারা আমাদের ওয়েবসাইটে লেখা পাঠাতে চান তারা নিম্নোক্ত ই -মেইল ঠিকানায় লেখা পাঠাতে পারবেন। অন্য কারো লেখা কপি করা গ্রহণযোগ্য হবে না। কোন প্রকারের অশ্লীল ভাষায় লেখা গ্রহণযোগ্য হবে না। লেখার সাথে কোন ছবি দিতে চাইলে সেই ছবিটা লেখার সাথে পাঠাবেন। লেখার নিচে আপনার নাম দিবেন। ই-মেইল ঠিকানা  atikur.bdco@gmail.com । কোন বিষয়ে এডমিনের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে আমাদের ফেসবুক পেজে মেসেজ পাঠাতে পারবেন  আমাদের  সাথে যোগাযোগ করতে কোনো প্রকার  সংকোচ বোধ করবেন না। আপনার প্রতিটি লেখা আমাদের কাছে অতি  মূল্যবান ।     আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

ঈদুল আযহা — মোঃ দেলোয়ার হোসেন

  • প্রকাশ : শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০
  • ৮০ বার পড়া হয়েছে

ঈদুল আযহা  মুসলমানদের প্রধান দুটি ধর্মীয় উৎসবের অন্যতম।বাংলাদেশে এটি কুরবানীর ঈদ, বাকরা ইদ নামে পরিচিত।প্রতি বছরের ন্যায় মহাধুমধাম ও আনন্দ উল্লাসের মাধ্যমে ইদুল আযহা উদযাপনের উদ্দেশ্য থাকলেও করোনা ভাইরাস (COVID 19) তার প্রধান অন্তরায়। ইতিমধ্যে সরকার ঈদুল আযহা যথাযথভাবে পালন করার উদ্দেশ্যে যথেষ্ট পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন, এবং নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখার উপর যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েছেন।

ঈদ ও আযহা দুটিই আরবী শব্দ। ইদ এর অর্থ উৎসব বা আনন্দ। আযহার অর্থ কুরবানী বা উৎসর্গ করা। হযরত ইবরাহীম (আ.) আল্লাহ তা’লার আদেশ পালনের উদ্দেশ্যে  জ্যেষ্ঠ পুত্র হযরত ইসমাঈল (আ.)-কে তাঁর (হযরত ইসমাঈলের) পূর্ণ সম্মতিতে কুরবানী করতে উদ্যত হন । মক্কার নিকটস্থ ‘‘মীনা’’ নামক স্থানে এ মহান কুরবানীর উদ্যোগ নেওয়া হয়। তাঁর ঐকান্তিক নিষ্ঠায় সন্তুষ্ট হয়ে আল্লাহ হযরত ইবরাহীম (আ.)-কে তাঁর পুত্রের স্থলে একটি পশু কুরবানী করতে আদেশ দেন। আল্লাহর প্রতি অবিচল আনুগত্য ও নজিরবিহীন নিষ্ঠার এ মহান ঘটনা অনুক্রমে আজও মীনায় এবং মুসলিম জগতের সর্বত্র আত্মত্যাগের প্রতীক হিসেবে পশু কুরবানীর রীতি প্রচলিত রয়েছে।

উৎসর্গকৃত পশু, যা’ এক আল্লাহর উদ্দেশ্যে যাব্হ করা হয়, আত্মীয়-স্বজন বিশেষত দুঃস্থ দরিদ্রজনের মধ্যে যা’ বিতরণ করে আল্লাহর নির্দেশ মোতাবেক তাঁর সান্নিধ্য লাভ করার চেষ্টা চালান হয়, সে সার্থক প্রচেষ্টার যে আত্মিক আনন্দ তাই ঈদুল আযহা নামে অভিহিত হয়। এ দিনে মীনায় হযরত ইবরাহীম (আ.)-এর অনুপম কুরবানীর অনুসরণে কেবল হাজীদের জন্য নয়, বরং মুসলিম জগতের সর্বত্র সকল সক্ষম মুসলমানদের জন্য এ কুরবানী করা ওয়াজিব ( সুন্নাঃ মুআক্কাদা)।

ঈদুল আযহা ১০ই যু’ল-হিজ্জা, যে দিন পবিত্র হজ্জব্রত পালনকালে হাজীরা মীনা প্রান্তরে কুরবানী করেন এবং তৎপরবর্তী দুই দিনে, মতান্তরে তিন দিনও (আয়্যাম-আল-তাশরীকে) অনুষ্ঠিত হয়।

কুরবানীর পশু নির্ধারিত বয়সের হতে হবে ও কতকগুলি দৈহিক ত্রুটি (কানা, খোঁড়া, কান-কাটা, শিং-ভাঙ্গা, ইত্যাদি) থেকে মুক্ত হওয়া বাঞ্ছনীয়। ঈদের নামাযের পর থেকে কুরবানীর সময় আরম্ভ হয়। পরবর্তী দুই দিন (মতান্তরে তিন দিন) স্থায়ী থাকে এবং শেষ দিনের সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে শেষ হয়।

উট, গরু, মহিষ অনধিক সাত জনের পক্ষে এবং মেষ, ছাগল, দুম্বা শুধু একজনের পক্ষে কুরবানী দেওয়া জায়েয। বাংলাদেশে প্রধানত গরু, ছাগল ও মহিষ কুরবানী দেওয়া হয়। কখনও কখনও আমদানীকৃত স্বল্পসংখ্যক উটও কুরবানী দেওয়া হয়।

যে ব্যক্তি কুরবানী করেন তাঁর নিজেই যাবহ করা সুন্নাহ্। তাঁর পক্ষে অন্য কেহও যাব্হ করতে পারে। যাব্হ করার সময় সাধারণত পড়া হয় পবিত্র কুরআনের দুটি আয়াত- সূরা আনআম-এর ৮০ নম্বর এবং ১৬৩ নম্বর আয়াত। প্রথমটির অর্থ হলঃ ‘‘আমি আমার মুখ করিলাম যিনি আকাশমন্ডল ও পৃথিবী সৃষ্টি করিয়াছেন তাঁহার প্রতি একনিষ্ঠভাবে এবং আমি মুশরিক নই।’’ দ্বিতীয়টির অর্থ হলঃ ‘‘অবশ্যই আমার সালাত, আমার কুরবানী, আমার জীবন, আমার মরণ, সবই আল্লাহর জন্য যিনি নিখিল বিশ্বের প্রতিপালক, তাঁহার কোনো শরীক নাই।’’ তারপর সাধারণত বলা হয়, ‘‘হে আল্লাহ এ পশু তুমিই দিয়াছ এবং তোমারই জন্য কুরবানী করিতেছি, সুতরাং তুমি ইহা কবুল কর’’, ইত্যাদি। তারপর ‘‘বিছমিল্লাহি আল্লাহু আকবর’’ বলে যাব্হ করা হয়। পবিত্র কুরআনে সুস্পষ্টভাবে উল্লেখিত হয়েছে যে, ‘‘এই কুরবানীর রক্ত আল্লাহর কাছে পৌঁছায় না, ইহার গোশ্তও না, বরং তাঁহার কাছে পৌঁছায় কেবল তোমাদের তাক্ওয়া’’ (২২ঃ৩৭)। জাহিলিয়্যার যুগে প্রতিমার গায়ে বলির রক্ত-মাখানো হতো এবং গোশ্ত প্রতিমার প্রসাদরূপে বিতরণ করা হতো। ক্ষেত্রবিশেষে নরবলি দেওয়ারও প্রথা ছিল। কুরবানী নরবলির বীভৎস প্রথা চিরতরে বিলুপ্ত করে এবং বলি পশুর রক্ত-মাখানো ও প্রতিমার প্রসাদরূপে বিতরণের প্রথারও মূলোচ্ছেদ করল। একই সঙ্গে সুস্পষ্টভাবে জানিয়ে দিল যে, তাক্ওয়ার চূড়ান্ত অর্থ হলো, প্রয়োজন হলে একজন মু’মিন তাঁর সবকিছু, এমন কি নিজের জীবনটিও, আল্লাহর নামে কুরবানী করতে সর্বদায় প্রস্ত্তত। কারণ ‘‘আল্লাহ মু’মিনের জান-মাল ক্রয় করিয়াছেন জান্নাতের বদলে’’ (৯ঃ১০০)। এ জন্যই কুরআন শরীফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছেঃ ‘‘অনন্তর তোমার প্রতিপালক প্রভুর জন্য নামায পড় এবং কুরবানী কর’’ (১০৮ঃ২)। হাদীস শরীফে এর সুস্পষ্ট বিধান বিদ্যমান।

কুরবানীর পর প্রাপ্ত গোশ্তের তিন ভাগের এক ভাগ মালিক, এক ভাগ আত্মীয়-স্বজন ও বাকি এক ভাগ দরিদ্রদের মধ্যে বিতরণ করা হয়। এতে দরিদ্রদের প্রতি ধনীদের দায়িত্ব পালনের একটি সুযোগ ঘটে এবং একই সঙ্গে ধনী দরিদ্রের মধ্যে সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। কুরবানীকৃত পশুর চামড়া নিজে ব্যবহার করার বা অন্যকে দান করার অনুমতি রয়েছে। কিন্তু চামড়া, গোশ্ত, হাড্ডি, চর্বি অর্থাৎ নিজ কুরবানীর কোনো কিছু বিক্রী করে বিক্রয়লব্ধ অর্থ ভোগ করার জাইয নয় (হিদায়া, আলমগীরী, শামী)। কুরবানীর পশুর চামড়া বা তার অর্থ দরিদ্রদের কিংবা মাদ্রাসা বা এতীমখানার দরিদ্র ছাত্রদের দান করা হয়।

পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মুসলমানদের ন্যায় বাংলাদেশের মুসলমানেরাও যথাযথ ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় ঈদুল আযহা পালন করে থাকেন। এ সময় মুসলমানরা নতুন পোশাক পরে পাড়া-প্রতিবেশী ও আত্মীয়-স্বজনদের বাড়ি যায় এবং কুশল বিনিময় করে। প্রত্যেক বাড়িতেই উন্নতমানের খাবার প্রস্ত্তত হয়। অন্য ধর্মাবলম্বীরাও কোথাও কোথাও নিমন্ত্রিত হয়ে এ উৎসবে যোগদান করে। এ উপলক্ষে কয়েকদিনের সরকারি ছুটি ঘোষণা করা হয়। প্রবাসীদের অধিকাংশই নিজ নিজ গ্রামের বাড়ি গিয়ে আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে মিলিত হয়ে ঈদ উদযাপন করে। বিভিন্ন মসজিদ-ময়দানে ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় কয়েকদিন যাবৎ রেডিও-টেলিভিশনে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করা হয় এবং পত্র-পত্রিকাসমূহে ইদুল আযহার তাৎপর্য তুলে ধরে মূল্যবান নিবন্ধাদি প্রকাশিত হয়। 

লিখেছেন — মোঃ দেলোয়ার হোসেন

 82 total views,  3 views today

মন্তব্য করুন

আপনার লেখা প্রকাশ করুন

লেখা গুলো ই-মেইলে পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

এই বিষয়টি আপনার যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

মন্তব্য বন্ধ আছে।

এই বিভাগের আরো লেখা
© All rights reserved © 2019 www.atikurbd.com
Customized BY NewsTheme